করোনাভাইরাস সম্পর্কে ভুল তথ্য দিয়েছেন এই সেলেব্রিটিরা

ফেসবুকে শেয়ার করুন টুইট শেয়ার Snapchat রেডিট কমেন্ট
করোনাভাইরাস সম্পর্কে ভুল তথ্য দিয়েছেন এই সেলেব্রিটিরা

একাধিক সেলিব্রিটি সোশ্যাল মিডিয়ায় করোনাভাইরাস সম্পর্কে ভুল তথ্য পোস্ট করেছেন

হাইলাইট
  • করোনাভাইরাস সম্পর্কে একাধিক ভুল তথ্য পোস্ট করেছেন বিভিন্ন সেলেব্রিটি
  • যে কোন পোস্ট করার আগে সচেতন থাকতে হবে
  • সব তথ্য যাচাই করে পোস্ট করুন

বিশ্বব্যাপী দাবানলের মতো ছড়িয়ে পড়ছে করোনাভাইরাস অতিমারি। ভাইরাস সংক্রমণের মতোই দ্রুতবেগে ছড়াচ্ছে এই রোগ সম্পর্কে ভুয়ো তথ্য। সব সোশ্যাল মিডিয়া ওয়েবসাইটেই এই রোগ সম্পর্কে ভুল তথ্য মুহূর্তে লাখ লাখ মানুষের কাছে পৌঁছচ্ছে। করোনাভাইরাস আক্রান্তরা হোমিওপ্যাথি ওষুধে ঠিক হচ্ছেন, পনেরো মিনিট রোদে দাঁড়ালে করোনাভাইরাস মরে যাবে, 12 ঘণ্টা বাড়ি বসে থাকলে করোনাভাইরাস সংক্রমণ বন্ধ করা সম্ভব, এই ধরনের বিভিন্ন ভুয়ো তথ্য ইন্টারনেটে ছড়িয়ে পড়ছে। ডাক্তার ও সরকারের আচরণবিধি থেকে দ্রুত ছড়াচ্ছে ভুয়ো খবরগুলি।

গত সপ্তাহে 22 মার্চ ‘জনতা কার্ফু'-র দিন ভুল তথ্য দিয়ে টুইট করেন অমিতাভ বচ্চন। টুইটারে বিগ বি বলেন, “হাততালি ও শঙ্খের তরঙ্গ ভাইরাসের শক্তি কমিয়ে দেয়।” এছাড়াও অমিতাভ বচ্চন বলেন, “নতুন নক্ষত্র রেভতিতে যাচ্ছে চন্দ্র। একসাথে শব্দতরঙ্গ তৈরি করবে রক্ত চলাচল ভালো হবে।” ‘জনতা কার্ফু'-র আগে এই রকম একটি মেসেজ হোয়াটসঅ্যাপে ভাইরাল হয়েছিল। তাই এই টুইটের জন্য সরাসরি বলিউডের শাহেনশাকে দোষারোপ করা যায় না। তবে তার বিশাল ফ্যান ফলোইং থাকার কারণে সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করার আগে আরও সচেতন হওয়া প্রয়োজন। মুহূর্তে অমিতাভের এই টুইট 254 বার রি-টুইট ও 2,300 টা লাইক পেয়েছিল।

amitabh bachchan amavasya tweet screenshot amitabh bachchan amavasya tweet

এর পরেও করোনাভাইরাস সম্পর্কে ভুল তথ্য দিয়ে টুইট করতে থাকেন অমিতাভ। অন্য এক টুইটে covid19india.org ওয়েবসাইটকে অফিশিয়াল ওয়েবসাইট বলেন তিনি। যদিও এই ওয়েবসাইটে লেখা রয়েছে এটা অফিশিয়াল ওয়েবসাইট নয়। সেখানে জানানাও হয়েছে বিভিন্ন যায়গা থেকে তথ্য সংগ্রহ করে এই ওয়েবসাইট চলছে।

যদিও এই তালিকায় অমিতাভ বচ্চন একমাত্র নাম নয়। করোনাভাইরাস নিয়ে ভিডিও পোস্ট করে ট্রোলড হয়েছেন জনপ্রিয় গায়ক সোনু নিগম। একটি ভিডিওতে তিনি প্রধানমন্ত্রীকে ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন করোনাভাইরাস ১২ ঘণ্টা বেঁচে থাকতে পারে। তাই ১৪ ঘণ্টা জনতা কার্ফু ডেকে ভারত এমন কাজ করল যা অন্য কোন দেশ আগে করে দেখাতে পারেনি।

দক্ষিণ ভারতের সুপারস্টার রজনীকান্ত Youtube -এ ‘জনতা কার্ফু'-র সময় মানুষকে ঘরে থাকার আবেদন জানিয়েছেন। তিনি বলেন   12-14 ঘণ্টায় ভাইরাস নিষ্ক্রিয় করা যাবে। প্রথমে টুইটারে এই তথ্য জানালেও ভুল তথ্য দেওয়ার জন্য কিছু সময় পরে সেই টুইট সরিয়ে দেয় টুইটার।

এই সব সোশ্যাল মিডিয়া পোস্টের পরে ফ্যানদের প্রতিক্রিয়া সেলিব্রিটিদের সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করার আগে ভাবাবে। যে সব সেলিব্রিটির সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রচুর ফলোয়ার রয়েছে যে কোন পোস্ট করার আগেই তথ্যের সত্যতা যাচাই করে নিতে হবে। নাহলে খুব কম সময়ে সমাজের বিভিন্ন প্রান্তে ভুয়ো খবর ছড়াতে শুরু করবে।

ইতিমধ্যেই সোশ্যাল মিডিয়া কোম্পানিগুলিকে ভুয়ো খবরের দিকে কড়া দৃষ্টি রাখার নির্দেশ দিয়েছে কেন্দ্র। এই সুযোগে ভুয়ো খবর দূরে রেখে সচেতনতা প্রসারে এগিয়ে আসছে ফেসবুক হোয়্যাটসঅ্যাপের মতো প্ল্যাটফর্মগুলি। 

কমেন্ট

প্রযুক্তির সাম্প্রতিক খবর আর রিভিউস জানতে লাইক করুন আমাদের Facebook পেজ অথবা ফলো করুন Twitter আর সাবস্ক্রাইব করুন YouTube.

পড়ুন: English தமிழ்
 
 

বিজ্ঞাপন

Advertisement

© Copyright Red Pixels Ventures Limited 2020. All rights reserved.
Listen to the latest songs, only on JioSaavn.com